পরকী’য়া করে সন্তানসহ টাকা নিয়ে উধাও প্রবাসীর স্ত্রী

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার শুভারামপুর গ্রামের প্রবাসী আলমগীর হোসেনের স্ত্রী শারমিন আক্তার রুমি (২৫) পরকী’য়া করে ক’ন্যা স’ন্তানসহ টাকা-পয়সা ও গয়নাগাটি নিয়ে পালিয়ে গেছেন।

আপন খালাতো বোনকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন প্রবাসী আলমগীর হোসেন। তিনি প্রবাসে থেকে টাকা পয়সা দিয়ে তার স্ত্রীকে এইচএসসি থেকে মাস্টার্স পর্যন্ত লেখাপড়া করান। স্ত্রীর পালানোর সংবাদ পেয়ে আলমগীর হোসেন দেশে আসেন এবং বর্তমানে তিনি দেশে আছেন।

তিনি জানান, আমাদের সংসার জীবনে জান্নাত জেমি রোজা নামের ছয় বছর বয়সী একটি ক’ন্যাসন্তান রয়েছে। প্রবাসে থাকাকালে আমার যাবতীয় উপার্জনের টাকা আমি আমার স্ত্রীর কাছে পাঠাতাম। সে আমার ৬ লাখ টাকা, গয়নাগাটি ও আমার মেয়েটিকে নিয়ে পরকী’য়া করে অন্য পুরুষের সঙ্গে পালিয়েছে।

তিনি আরও জানান, স্ত্রী চলে যাওয়ার পর সে আমাকে ও আমার বাবা-মাকে আ’সামী করে আদালতে মা’মলা করেছে। মা’মলা করার পর আমার বাবা-মা আদালতে হাজির হলেও সে হাজির হয়নি। এমন সংবাদ পেয়ে আমি বিদেশ থেকে বাড়িতে এসে শুনি আমার ক’ন্যা সন্তান নিয়ে স্ত্রী অন্য পুরুষের সঙ্গে পালিয়েছে। সে অন্য কোথায়ও বিয়ে করে সংসার করছে। আমি আমার স্ত্রীর ফোন নাম্বারে কল করলে বন্ধ পাই। পরে শ্বশুর বাড়িতে খবর নেই, স্ত্রী সন্তান কোথায় আছে জানতে চাইলে, শ্বশুর শাশুড়ী জানায় তোমার স্ত্রী সন্তান আমাদের কাছে নেই অন্য কোথাও বিয়ে হয়েছে।

স্ত্রী সন্তানের জন্য পাগল হয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছেন প্রবাসী আলমগীর হোসেন। তিনি জানান-স্ত্রী পালানোর ঘটনার সঙ্গে আমার খালা-খালু জড়িত রয়েছেন। তারা টাকা পয়সার লোভে আমার স্ত্রীকে পালাতে সহযোগিতা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *